আহলে হাদীসদের বিরুদ্ধে আমরা কেন কথা বলছি? বর্তমান যুগে এই গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের জবাব জানা সমস্ত মুসলিমদের জন্য জরুরী! বিস্তারিত জানতে ভিডিও দেখুন

এখানে বক্তব্যের কিছু বিশেষ অংশ তুলে ধরা হলোঃ আহলে হাদীসদের কিতাবে সাহাবায়ে কেরাম রাঃ দের বিরুদ্ধে বিষোদগার পাওয়া যায়! আহলে হাদীসদের এক মহা (!) মনিষী বলেন,কিছু কিছু সাহাবী ফাসেক ছিলেন! (নাউযুবিল্লাহ) এদের কিতাবে আরো আছে, কিছু কিছু সাহাবীদের রাদিআল্লাহু আনহু বলা যাবেনা! (নাউযুবিল্লাহ)।
(অথচ হাদীসে বলা হয়েছে,সাহাবায়ে কেরাম রাঃ সমালোচকদের উপর আল্লাহর লানত!) ।

আহলে হাদীসদের কিতাবে আছে আল্লাহ আরশে বসে আছেন এবং কিয়ামতের দিন আরশে আল্লাহর পাশে রাসূল সাঃ বসবেন! (নাউযুবিল্লাহ) এদের আরো ভ্রান্ত আকিদাহ হলো, আল্লাহ তায়ালার অঙ্গপ্রত্যঙ্গ আছে! এরা বিশ্বাস করে আল্লাহর ছায়া আছে! আল্লাহ দৌড়ান! (নাউযুবিল্লাহ)

মাযহাবের ইমামদের শরিয়াহ সিদ্ধান্ত কুরআন ও হাদীসেরই অংশ ও ব্যাখ্যা। অথচ,এই আহলে হাদীসরা কুরআন-হাদীসের ব‍্যাখ‍্যা তথা মাযহাবের বিষয়ে সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করছে!

গত ২২ ডিসেম্বর ২০১৫, ঐতিহ্যবাহী জামেয়া ক্বাসিমুল উলুম দরগাহে হজরত শাহজালাল রহঃ, সিলেট বাংলাদেশ এর উদ্যোগে,মাযহাব বিষয়ক তাহাফ্ফুজে সুন্নাহ কনফারেন্স,মাযহাব ও আহলে হাদীসদের ভ্রান্ত আকিদাহ বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন,মুফতী ইজহারুল ইসলাম আল-কাউসারী সাহেব।

 

Print Friendly