আল্লাহ তায়ালাকে যে কোন সৃষ্টির মাঝে বিশ্বাস করাকে হুলুল বলে। খৃষ্টানরা ইসা আ: এর মাঝে আল্লাহর হুলুল বা অনুপ্রবেশের আকিদা রাখত। হিন্দুরা গাছ-পালা, গরু-গাভীর ভেতরে আল্লাহর অনুপ্রবেশের আকিদা রাখে।

হুলুলের আকিদা একটি মারাত্মক কুফুরী আকিদা। যে কোন মাখলুকের মধ্যে আল্লাহ তায়ালা প্রবেশ করেছেন, এই বিশ্বাস কুফুরী। এখানে মাখলুক ছোট না বড় সেটা বিবেচ্য নয়। গরু গাভীর মধ্যে আল্লাহকে বিশ্বাস করলে যেমন কুফুরী হবে, একইভাবে আসমানে আল্লাহ তায়ালাকে বিশ্বাস করলেও কুফুরী হবে। যে কোন স্থানে আল্লাহ তায়ালাকে বিশ্বাস করলে কুফুরী হবে। কারণ সমস্ত স্থান সৃষ্টি বা মাখলুক। যারা আল্লাহ তায়ালাকে আসমানে, আরশে বা আরশের উর্ধ্বে কোন জায়গায় অাছেন এই বিশ্বাস রাখে, এরা সবাই হুলুলিয়া ফেরকার অন্তর্ভূক্ত। আসমান, আরশ বা আরশের উর্ধ্বের কোন জায়গা সবই মাখলুক বা সৃষ্টি। আর যে কোন মাখলুকের মধ্যে আল্লাহ তায়ালাকে বিশ্বাস করাই হল হুলুল।

পৃথিবীতে, গরু-গাভীর মধ্যে আল্লাহ তায়ালাকে বিশ্বাস করা আর আসমান, আরশ বা অন্য কোন জায়গায় আল্লাহ তায়ালাকে বিশ্বাস করা একই। সবগুলিই মাখলুক। যে ধরণের মাখলুকই হোক না কেন, আল্লাহ তায়ালাকে মাখলুকের ভেতরে বিশ্বাস করা কুফুরী। এজন্য আল-বাহরুর রায়েক ও ফতোয়ায়ে আলমগীরিতে রয়েছে, কেউ যদি আল্লাহ তায়ালাকে আসমানে বিশ্বাস করে সে কাফের হয়ে যাবে।

এখানে কাউকে কাফের মুশরিক বলা উদ্দেশ্য নয়। আকিদার ভয়াবহতা তুলে ধরা উদ্দেশ্য। যারা বুঝে অথবা না বুঝে হুলুলের আকিদা রাখেন, তারা কতো মারাত্মক আকিদা পোষণ করছেন, একটু ভেবে দেখা দরকার।

আহলে সুন্নতের আকিদা হল, আল্লাহ তায়ালা সমস্ত সৃষ্টি থেকে মুক্ত। সব কিছু সৃষ্টির আগে তিনি যেমন ছিলেন, এখনও আছেন। আল্লাহর কোন গুণে কোন পরিবর্তন হয় না। তার কোন গুণ বিলুপ্ত হয় না। নতুন কোন গুণ তিনি অর্জন করেন না। আরশ সৃষ্টির পর তিনি নতুন কোন গুণ অর্জন করেছেন বা তার কোন গুণে পরিবর্তন হয়েছে, এটা বিশ্বাস করাও কুফুরী। এজন্য আহলে সুন্নতের আলেমগণ বলেন, كان الله بلا مكان وهو الآن علي ماكان। সব কিছু সৃষ্টির আগে আল্লাহ তায়ালা স্থান থেকে মুক্ত ছিলেন। এখনও তিনি তেমনই আছেন সব কিছু সৃষ্টির আগে যেমন ছিলেন।

ইমাম ত্বহাবী রহ: আকিদাতুত ত্বহাবিয়া-তে লিখেছেন,
مَا زَالَ بِصِفَاتِهِ قَدِيمًا قَبْلَ خَلْقِهِ، لَمْ يَزْدَدْ بِكَوْنِهِمْ شَيْئًا لَمْ يَكُنْ قَبْلَهُمْ مِنْ صِفَتِهِ، وَكَمَا كَانَ بِصِفَاتِهِ أَزَلِيًّا كَذَلِكَ لَا يَزَالُ عَلَيْهَا أَبَدِيًّا.

অর্থ: আল্লাহ তায়ালা তার সমস্ত গুণসহ সব কিছু সৃষ্টির পূর্ব থেকেই অনাদি। সব কিছু সৃষ্টির পর আল্লাহর নতুন কোন গুণ সংযোজিত হয়নি। আল্লাহ তার সমস্ত গুণসহ যেমন অনাদি, একইভাবে অনন্তকাল তিনি থাকবেন।

আল্লাহর গুণে কোন পরিবর্তন বা নতুনত্ব আসে না। আগে একটি গুণ আল্লাহর ছিল না, নতুনভাবে অর্জন করেছেন, এই বিশ্বাস কুফুরী। আল্লাহর জাত ও সিফাত সব কিছুই অনাদী। যারা বিশ্বাস করে আরশ সৃষ্টির পর আল্লাহ তায়ালা নতুন কোন গুণ অর্জন করেছেন, তাদের এই বিশ্বাসও কুফুরী।

যারা আল্লাহ তায়ালাকে আরশে, আসমানে বা অন্য কোন জায়গায় বিশ্বাস করে তারা দু’টি কুফুরী আকিদা রাখে,

১। যে কোন মাখলুকের ভেতরে আল্লাহ তায়ালাকে বিশ্বাসের কারণে হুলুলের আকিদা রাখে।

২। এরা বিশ্বাস করে, সব কিছু সৃষ্টির পর আল্লাহ তায়ালা নতুন গুণ অর্জন করেছেন বা আল্লাহর গুণে পরিবর্তন হয়েছে।

এই দু’টি কারণে আল্লাহর জন্য স্থান সাব্যস্ত করা কুফুরী। এ বিষয়ে ইমামগণের বক্তব্য জানতে লিংকের পিডিএফ দেখুন।

https://drive.google.com/file/d/1o_EJwCjebgbhhrFIUsoGXEXFMcWWdhXG/view