আহলে সুন্নতের আকিদা হল, নবীজী স: কবরে জীবিত। নবীগণ তাদের কবরে জীবিত এবং তারা নামায আদায় করে থাকেন। শুধু নবীগণই নন, শহীদরাও কবরে জীবিত। পবিত্র কুরআনে আল্লাহ তায়ালা শহীদদেরকে মৃত বলতে নিষেধ করেছেন। তিনি বলেছেন, তারা জীবিত। তারা আল্লাহর পক্ষ থেকে বিশেষ রিজিক পেয়ে থাকে। নবীগণের মর্যাদা শহীদদের চেয়েও বেশি। তাছাড়া নবীদের কবরে জীবিত থাকা এবং নামায আদায়ের বিষয়ে স্পষ্ট হাদীস রয়েছে।

যারা কবরে নবীগণকে মৃত মনে করে, তাদের আকিদা কুরআন-সুন্নাহ বিরোধী।এরা আহলেসুন্নতের আকিদারও বিরোধী। এধরণের আকিদা পোষণকারী ব্যক্তি নিজেকে আহলে সুন্নতের পরিচয় দিলেও সে আহলে সুন্নত নয়। বরং কুরআন-সুন্নাহ বিরোধী বাতিল আকিদা পোষণকারী।

একটা সাধারণ বিষয় বুঝতে হবে। নবীগণের দুনিয়াবী হায়াত শেষ হয়ে গেছে। দুনিয়াবী দৃষ্টিকোণ থেকে তারা দুনিয়া থেকে বিদায় নিয়েছেন। দুনিয়ার হায়াত শেষ হয়ে তাদের মৃত্যু হয়েছে। আর এই মৃত্যুর মধ্য দিয়ে তারা কবরের জীবনে প্রবেশ করেছেন। তারা কবরের জীবনে মৃত নয়। কবরের জীবনে তারা জীবিত আছেন। আমরা নাস্তিকদের মত শুধু দুনিয়ার জীবনকেই মূল জীবন মনে করি না। আমরা বিশ্বাস করি, রুহের জগত যেমন সত্য, দুনিয়ার জগৎ সত্য, কবর ও হাশরের জীবন সত্য।

পাশ্চাত্যের বস্তবাদী প্রভাব, ওহাবী-সালাফীদের অজ্ঞতাপূর্ণ অপপ্রচারে আহলে সুন্নতের সঠিক আকিদা কখনও পাল্টে যাবে না। নবীগণ কবরে জীবিত এটাই আহলে সুন্নতের সর্বসম্মত সঠিক আকিদা।

Read More